সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৮:২৬ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ
       
শিরোনাম :
সোনারগাঁওয়ে পাগলা কুকুরের কামড়ে নারী শিশুসহ ৩২জন আহত সোনারগাঁওয়ে মেঘনা টোল প্লাজায় মাইক্রোবাসে আগুন, দগ্ধ ৫ সোনারগাঁও পল্লী বিদ্যুতের সেই ডিজিএমকে অবশেষে বদলি   জামপুরে বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় মিলাদ ও দোয়া সোনারগাঁওয়ে শিশুর মরদেহ উদ্ধার , গুরুত্বর অবস্থায় হাসপাতালে মা  সোনারগাঁওয়ে তিতাসের অভিযানে দু’দিনে ১৬ শ অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের নির্বাচনে নাফিজ-স্মিথ পরিষদের মনোনয়নপত্র দাখিল সোনারগাঁওয়ে দলিল লিখককে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার চেষ্টা সোনারগাঁওয়ে অজ্ঞাত নারীর অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার সোনারগাঁওয়ে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় বৃদ্ধ গ্রেপ্তার

তত্বাবধায়ক চিরনিদ্রায়, আর চোখ খুলবে না—ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, সোনারগাঁও নিউজ :
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,  তত্বাবধায়ক সরকার মরিয়া ভুত হইয়া গেছে। এগুলো মাথা থেকে নামান। নয়ত এ ভুতে বিএনপি  শেষ। তত্বাবধায়ক সরকার চিরনিদ্রায় ঘুমিয়ে আছে। এ তত্বাবধায়ক আর কোনদিন চোখ মেলবে না। তিনি বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন আওয়ামী লীগের সময় শেষ কিন্তু প্রকৃত হলো বিএনপি ও ফখরুলদের সময় শেষ। আপনার মাথা থেকে তত্ত্বাবধয়াক সরকারের চিন্তা বাদ দেন। নির্বাচনে আসেন। নাইলে সব হারাবেন। তিনি আরও বলেন, অন্তরে জ্বালা। পদ্মা সেতু হয়ে গেল মেট্রোরেল হয়ে গেল। এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে হয়ে গেল। একদিনে একশ সেতুর উদ্বোধন। জ্বালারে জ্বালা অন্তরে জ্বালা।

 

 শুক্রবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের কাঁচপুরে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।
সেতু মন্ত্রী আরো বলেন, জো বাইডেনের দুটি সেলফিতে বিএনপি নেতাদের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। ভারতে জি সম্মেলন ও আমেরিকাতে নৈশভোজে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সেলফিতে সব পরিস্কার হয়ে গেছে। তাই এখন বিএনপির জ্বালা। পদ্মা সেতু, চিটাগাংয়ে টানেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেস, একদিনে শতাধিক সেতু উদ্বোধনে বিএনপির অন্তঃজ্বালা হয়ে গেছে। বিএনপির সঙ্গে আর কোন সমঝোতা চলবে না। তোমরা জনগণের শত্রু। জনগণের শত্রুর সঙ্গে আওয়ামী লীগ কোন সমঝোতা করবে না।
তিনি বলেন,অচিরেই তেল চাল নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম কমে আসবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভুল বুঝবেন না। তাঁর উপর আস্থা রাখেন। তিনি দিন রাত পরিশ্রম করে চলেছেন।
নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, এখন কোয়ার্টার ফাইনাল, সামনে সেমিফাইনাল, ফাইনাল হবে জানুয়ারিতে। এবার খেলা হবে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে, ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে।
তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের মানুষ ভুল করবেন না। তিনি এ নারায়ণগঞ্জকে অনেক দিয়েছেন। আশা করি নারায়ণগঞ্জবাসী এর প্রতিদান দিবেন। আগামীতে আরো দিবেন। মির্জা ফখরুল বলেছেন ঢাকাকে অচল করে দিবে। আমরা বলতে চাই দেশের মানুষই আগামীতে বিএনপিকে অচল করে দিবে। আগামীতের দেশের মানুষই বিএনপিকে অচল করে দিবে। এ নারায়ণগঞ্জই যথেষ্ট বিএনপিকে রুখে দিতে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, আওয়ামী লীগের প্র্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা বিভাগীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া,  নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি একে এম শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের এমপি নজরুল ইসলাম বাবু, যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মঈনুল হাসান নিখিল, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ মোহাম্মদ বাদল, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার, সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সামসুল ইসলাম ভুইঁয়া, সিনিয়র সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম, আওয়ামীলীগ নেতা ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, মাহফুজুর রহমান কালাম, এ এইচ এম মাসুদ দুলাল, এরফান হোসেন দীপ, মারুফুল ইসলাম ঝলক, সোহাগ রনি, রফিকুল ইসলাম নান্নু,  আলী হায়দার, মোহাম্মদ হোসাইনসহ আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা খাম্বা দিয়েছে বিদ্যুৎ দেয়নি। এখন শেখ হাসিনার আমলে শতভাগ বিদ্যুৎ দেয়া হচ্ছে। খেলা হবে ! অক্টোবর পার হয়ে যাচ্ছে।  ফখরুল নাকি ঢাকা অবরোধ করবে। এ নারায়ণগঞ্জের সমাবেশ থেকে বলতে চাই জনগণ তাদের জবাব দিবে। আগুন নিয়ে আসলে হাত পুড়ে দেব। লাঠি নিয়ে আসলে হাত ভেঙে দেব।
তিনি বলেন, ফখরুল বলেন শেখ হাসিনা ঘেরাঘুরি করে। শেখ হাসিনা কোথায় গেছে, জি-২০ তে। কী সম্মান মোদি দিয়েছে। নিউইয়র্কে গিয়েছে কী সম্মান পেয়েছে। শেখ হাসিনাকে নিয়ে আমরা গর্বিত। দেশের প্রয়োজনেই তিনি বাইরে যান। তিনি ব্রাসেলসে যাচ্ছেন আমন্ত্রণে। তিনি যাচ্ছেন দেশের জনগণের জন্য।
তিনি বলেন, ওরা গণতন্ত্রের কী জানে। ওরা জানে মানুষ খুন, লুটপাট, ভোটচুরি। শেখ হাসিনাকে টার্গেট করেছিল বিএনপি। এদের হাতে বাংলাদেশের মানুষ ক্ষমতা আর ফিরিয়ে দেবে না। আপনাদের বলছি বিএনপি থেকে সাবধান।
আওয়ামী লীগের প্র্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, জাতীয় পার্টির ভাইয়েরা বড় বড় কথা বলেন। আওয়ামী লীগ ছাড়া নির্বাচন করে দেখেন কয়টি সিট পান। তাদের পায়ের তলে মাটি নাই। তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের দল গণমানুষের দল। আর ওদিকে লন্ডনে থেকে তারেক রহমান এদেশকে অশান্ত করতে চায়। কাঁচপুরের যদি নির্বাচনের বিরোধীরা বসে থাকে আপনারা কি চুপ করে বসে থাকবেন। ছাত্র শ্রমিক ভাইয়েরা উন্নয়নের এই জোয়ারকে অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনাকে জয়যুক্ত করবেন।
তিনি আরও বলেন, এখানে জাতীয় পার্টির এক এমপি আছে। সে আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করে দিচ্ছে। এই এলাকাকে ও এলাকার মানুষকে রক্ষা করতে এখানকার মানুষ নৌকা চায়। এটি জাতীয় পার্টির সিট নয়।
পোস্টটি শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © Sonargaonnews 2022
Design & Developed BY N Host BD