Warning: Creating default object from empty value in /home/sonarga1/public_html/wp-content/themes/newsfresh/lib/ReduxCore/inc/class.redux_filesystem.php on line 29
সোনারগাঁওয়ে করোনা টিকা নিতে এসে হেনস্তার শিকার সাধারণ মানুষ, জনগণকে দুষ্কৃতিকারী আখ্যা দিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মানববন্ধন সোনারগাঁওয়ে করোনা টিকা নিতে এসে হেনস্তার শিকার সাধারণ মানুষ, জনগণকে দুষ্কৃতিকারী আখ্যা দিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মানববন্ধন – সোনারগাঁওনিউজ

বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৪৮ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ
       
শিরোনাম :
জামপুরে হুমায়ুন চেয়ারম্যান এর উদ্যাগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন  ইউপি সদস্যদের নিয়ে কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করেন এমপি খোকা ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন এরফান হোসেন দীপের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন সোনারগাঁওয়ে দলিল লিখক হত্যা মামলায় প্রধান আসামী পরকীয়া প্রেমিক গ্রেফতার শেখ হাসিনার জন্মদিনে সোনারগাঁওয়ে মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও হাসপাতালের রোগীদের মাঝে খাবার বিতরণ ইলেক্ট্রিক শর্ট ও বালতিতে চুবিয়ে হত্যা, আদালতে স্ত্রীর স্বীকারোক্তি বারদীতে ইউপি সদস্যের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ তালা প্রতীক  পেয়ে আবু নাইম ইকবালের সমর্থকদের আনন্দ উল্লাস    কাঁচপুরে পরকীয়ার জেরে দলিল লিখককে হত্যা, স্ত্রী আটক

সোনারগাঁওয়ে করোনা টিকা নিতে এসে হেনস্তার শিকার সাধারণ মানুষ, জনগণকে দুষ্কৃতিকারী আখ্যা দিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সোনারগাঁও নিউজ :

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার টিকা নিতে গিয়ে টিকা গ্রহণকারী সাধারণ জনগণের উপর হামলা ও শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে হাসপাতাল কতৃপক্ষের দালাল চক্রের বিরুদ্ধে। বুধবার দুপুরে টিকা নিতে এসে হেনস্তার শিকার হয়ে উত্তেজিত সাধারণ মানুষ হাসপাতালের পশ্চিম পাশের একটি ভবনের জানালার গ্লাস ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় স্থানীয় সাংবাদিকরা তথ্যসংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিকদেরও লাঞ্চিত করে হাসপাতালে কর্মরত চতুর্থ শ্রেণি কর্মচারী ও দালাল চক্রের সদস্যরা। এদিকে সোনারগাঁও হাসপাতাল কতৃপক্ষ বৃহস্পতিবার টিকা নিতে আসা সাধারণ জনগণকে দুষ্কৃতিকারী আখ্যা দিয়ে মানববন্ধন করে। উপজেলার উদ্ধবগঞ্জ শহীদুল্লাহ প্লাজার সামনে এ মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কতৃপক্ষের লোকজন।

করোনা টিকা নিতে যাওয়া সাধারণ মানুষের অভিযোগ, হাসপাতালের নিযুক্ত দালালরা ১০০ থেকে ৩০০ টাকা পর্যন্ত টাকা নিয়ে লাইনে থাকা পিছনের লোকদের আগে টিকা দিতে সহায়তা করায় এ ঘটনা ঘটেছে। অপরদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, লাইন সোঁজা করতে গেলে সাধারণ মানুষ উত্তেজিত হয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় এক হামলাকারীকে আটক করে কক্ষে আটকে রেখে পুলিশে খবর দিলে টিকা নিতে যাওয়া জনতা হাসপাতালের জানালার কাঁচ ভাঙচুর করে।

এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফুটেজ “গণমাধ্যম কর্মী (সাংবাদিকদের) হাতে আসে। ভিডিওতে দেখা যায়, সোনারগাঁও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পশ্চিম পাশের ভবন থেকে সড়ক পর্যন্ত টিকা নিতে যাওয়া শত শত মানুষ অপেক্ষমান। সামনে থেকে হট্টগোল শুরু হয়। টিকা নিতে আসা একজন মহিলা কান্না কন্ঠে তার ছেলে ও স্বামীকে ভেতরে আটকে রেখে হাসপাতালের লোকজন মারধর করছে বলেও জানা গেছে।

সুত্র জানান, যারা হাসপাতাল কতৃপক্ষের নিয়োগপ্রাপ্ত দালালদের দাবিকৃত ১০০ থেকে ৩০০ টাকা দিচ্ছে তাদেরই কেবল আগে টিকা দেয়ার সুযোগ করে দেয়া হচ্ছে। আর যারা ঘন্টার পর ঘন্টা রোদে পুড়ে দাড়িয়ে থাকছে তাদের টিকা দেয়ার কোন খবরই নেই। এমন অপকর্মের প্রতিবাদ করায় হাসপাতালের পক্ষে কাজ করা স্থানীয় দালাল চক্র তার ছেলেকে ঘরে আটকে রেখে মারধর করছে। এক পর্যায় আটককৃত ব্যক্তিও ক্যামেরার সামনে এসে তাকে আটকে রেখে মারধরের কথা স্বীকার করেন। এ সময় ভেতরে থাকা অন্যান্য ব্যক্তিরা ওই ব্যক্তিকে জোর করে পূণরায় ভিতরে নিয়ে গেলে সাধারণ মানুষ উত্তেজিত হয়ে ওঠে। একপর্যায় হাসপাতালের ওই কক্ষের ভিতর থেকে দুই-একজন ব্যক্তি সাধারণ জনগণকে গালাগাল করলে বাহিরে থাকা সাধারণ মানুষ আবারও উত্তেজিত হয়ে ইট-পাটকেল ছুঁড়ে ওই কক্ষের জানালার কাঁচ ভাঙচুর করে।

এদিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোনারগাঁও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কতৃপক্ষ গতকাল বৃহস্পতিবার টিকা নিতে আসা সাধারণ জনগণকে দুষ্কৃতিকারী আখ্যা দিয়ে মানববন্ধন করে। উপজেলার উদ্ধবগঞ্জ শহীদুল্লাহ প্লাজার সামনে এ মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কতৃপক্ষের লোকজন। এসময় সোনারগাঁও বেসরকারি ক্লিনিক সংগঠনের কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

সোনারগাঁও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. পলাশ কুমার সাহা সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, শত শত মানুষ টিকা নিতে যান, সেখানে লাইনে দাড়ানো নিয়ে কিছুটা বিশৃঙ্খলা হতেই পারে। আমাদের হাসপাতালের লোকজনসহ আমি নিজে লাইন সোঁজা করতে গেলে একজন যুবক ঘুঁষি মেরে আমার চশমা ভেঙে ফেলে। এ সময় আমার সাথে থাকা লোকজন ওই যুবককে আটক করে একটি কক্ষে নিয়ে আটকে রাখে ঠিক, কিন্তু তাকে কোন রকম নির্যাতন করা হয়নি। আটকে রেখে আমি বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, থানার ওসি, জেলা পুলিশ সুপার ও আমার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানিয়েছি। পরে তাদের কথা মত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সোনারগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, খবর পেয়ে আমাদের পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে যায়। হাসপাতালের পশ্চিম পাশের একটি জানালার কাঁচ ইট দিয়ে ঢিল মেরে উত্তেজিত জনতা ভেঙে ফেলেছে বলে জানতে পেরেছি। এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

পোস্টটি শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Recent Comments

No comments to show.
© All rights reserved © Sonargaonnews 2022
Design & Developed BY N Host BD