রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ
       
শিরোনাম :
কাঁচপুরে কলেজ শিক্ষার্থী ছিনতাইকারী কবলে,  মোবাইল ও নগদ টাকা ছিনতাই বারদী সমাজ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে ৬শ’ পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ সনমান্দিতে আড়াই হাজার শ্রমজীবি মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ  জামপুরে মাতৃভূমি সমাজকল্যাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যাগে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ ঈদের দিন পর্যন্ত আমরা সবাই মাঠে কাজ করে যাবো–হাইওয়ে পুলিশ প্রধান সুবিধাবঞ্চিত ৩ হাজার পরিবারের মাঝে ভূঁইয়া ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার বিতরণ  সাংবাদিক শাহাদাত হোসেন রতনের শ্বাশুড়ির ইন্তেকাল সোনারগাঁও সাব রেজিস্ট্রি অফিসের দলিল লেখকদের নতুন কমিটির অনুমোদন সোনারগাঁওয়ে অস্বচ্ছল পরিবারের মাঝে  নগদ অর্থ ও ঈদ উপহার বিতরণ মেঘনা সেতুর টোল প্লাজার ছয়টি নতুন ইলেক্ট্রনিক টোল কালেকশন (ইটিসি) টোল আদায় বুথের উদ্বোধন

সোনারগাঁওয়ে মা ছেলেকে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, সোনারগাঁও নিউজ :
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে অগ্নিদগ্ধে ছেলের মৃত্যুর ৬ দিন পর অগ্নিদগ্ধ মায়েরও মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধী অবস্থায় মা সুফিয়া বেগম মারা যান। এর আগে গত ৮ অক্টোবর পারিবারিক কলহে ছেলে শান্ত নিজের শরীরে অকটেন ঢেলে মারা যান । ওই সময় ছেলেকে বাচাঁতে গিয়ে মাও অগ্নিদগ্ধ হয়।

এদিকে মা ছেলেকে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে নিহতের পরিবার ও স্বজনরা। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার উদ্ববগঞ্জ এলাকায় হাজী শহিদুল্লাহ প্লাজার সামনে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেন।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন, নিহত সুফিয়া বেগমের ভাই হযরত আলী, মো. শহীদ মিয়া, বোন সুরিয়া আক্তার, শিউলি বেগম, ভাগিনা সুমন মিয়া, কাউসার প্রমুখ। মানববন্ধন কর্মসূচীতে বোন ও ভাগিনাকে পুড়িয়ে হত্যার করেছে বলে দাবি করেন বক্তরা।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তরা দাবি করেন, নিহত সুফিয়ার স্বামী মোহাম্মদ আলী একাধিক বিয়ে করেছেন। সুফিয়া তার প্রথম স্ত্রী। তার সংসারে তিনজন সন্তান রয়েছে। তৃতীয় স্ত্রী জায়েদাকে সংসারে আনার জন্য বিভিন্ন সময়ে সুফিয়া বেগম ও তার সন্তানদের নির্যাতন করতো। এ নিয়ে তাদের সংসারে অশান্তি চলছিল।

মানববন্ধনে তাদের দাবি, পারিবারিক দ্বন্ধ ও পরকিয়ার জেরে গত ৮ই অক্টোবর শনিবার বিকেল তিনটার দিকে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ঝাউচর গ্রামের নিজ বাড়িতে মোহাম্মদ আলী তার ছেলে শান্ত ও সুফিয়া বেগমকে অকটেন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এসময় মা ও ছেলে অগ্নিদ্বগ্ধ হন।
পরে তাদের নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন ছেলে শান্ত ও গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মা সুফিয়া বেগম মারা যান।

এদিকে অগ্নিদগ্ধ সুফিয়া বেগম মৃত্যুর আগে অগ্নিদগ্ধে জড়িতদের নাম প্রকাশের একটি ভিডিও এ প্রতিবেদকের হাতে এসেছে। এতে সুফিয়া বেগম তার স্বামী মোহাম্মদ আলী, সতিন জায়েদা বেগম, জায়েদা বেগমের বোন জামাই মুজিবুর রহমান, বোন হাসিনা, মোস্তফা, হামিদা বেগম ও রাবেয়া নামের ব্যক্তিদের দায়ী করেন।
সোনারগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, ঘটনাটি নিয়ে ইতোপূর্বে একটি মামলা হয়েছে। হত্যাকান্ড প্রমাণিত হলে সেই মামলাটিই হত্যা মামলা হিসেবে রূপান্তর করা হবে।

পোস্টটি শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © Sonargaonnews 2022
Design & Developed BY N Host BD